West Bengal Government’s Fisheries department to Upgrade Testing Fecility – Setting up labs to boost fish productivity, eliminate diseases

0
900
Fish Testing Lab
Fish Testing Lab

West Bengal Government to set up lab to boost fish productivity, eliminate diseases

West Bengal Government to set up lab to boost fish productivity, eliminate diseases

The State Fisheries department will set up a laboratory to find out the cause of various diseases of fishes and help augment its production.

The proposed laboratory will come up on 10 acre of land at Chakgeria in South 24 Parganas. The laboratory will help find out causes of various diseases that affect fish population.

Before the fisherman releases fish seed, it was necessary to test the soil.

This testing will be done in the laboratory. Also, when a disease breaks out, it is necessary to do intense research to find out the cause as in fishes disease spreads very fast. Once the cause is detected it is easier to tackle the situation.

Also, the laboratory will be of immense value as it will help in augmentation of fish production.

A large chunk of fish in the state comes from Andhra Pradesh and if there is transport strike or something of that sort, the supply is affected and there is crisis in the city and state markets. Steps have been taken to make the state self sufficient in fish production.

From time to time the farmers will be given training on how to increase fish production and maintenance of the ponds.

 

মাছের রোগ প্রতিরোধ ও উ९পাদন বৃদ্ধির জন্য গবেষণাগার তৈরি করবে রাজ্য সরকার   

মাছের নানা রোগের কারণ এবং তাদের উ९পাদন বৃদ্ধির জন্য রাজ্য ম९স্য বিভাগ একটি গবেষণাগার স্থাপন করবে।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার চাকগেরিয়াতে ১০ একর জমির ওপর তৈরি হনবে এই গবেষণাগার। বিভিন্ন রোগ নির্ধারণে সাহায্য করে মাছের উ९পাদন বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে এই পরীক্ষাগার।

মাছের বীজ লাগানোর আগে মাটি পরীক্ষা করার প্রয়োজন।

সবরকম পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে এই গবেষণাগারে। যখন কোন একটি রোগের প্রকোপ বেড়ে যায়, ত९ক্ষণা९ তার কারণ খুঁজে বের করা প্রয়োজন। রোগের কারণ জানা গেলে পরিস্থিতি মোকাবিলা করা সহজতর হয়।

এছাড়াও,  মাছের উ९পাদন বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে এই পরীক্ষাগার।

অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে অনেক মাছ রাজ্যে আসে, আর যদি কোন রকম পরিবহন ধর্মঘট হয় সেক্ষেত্রে মাছের যোগাণ ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং তার প্রভাব পড়ে শহরের বাজারে। রাজ্যে মাছ উ९পাদন যথেষ্ট করার জন্য ইতিমধ্যেই বেশ কিছু উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

মাছের উ९পাদন বৃদ্ধি কি করে সম্ভব এবং পুকুরের রক্ষণাবেক্ষণ কিকরে করতে হয় এখন থেকে সেই ব্যাপারে কৃষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।