Kanyashree: Empowering girls in Bengal on International Day of the Girl Child

0
1822
Mamata
Mamata

Kanyashree: Empowering girls in Bengal

Kanyashree: Empowering girls in Bengal

On the International Day of the Girl Child, Bengal Chief Minister Mamata Banerjee sent her best wishes to all the Kanyashree girls. “Girls are our assets. They are our future,” her message said.

Mamata Banerjee led Trinamool Congress Government had launched a scheme “Kanyashree” for the upliftment of girl child in 2013. Since then August 14 has been celebrated as Kanyashree Dibas.

The scheme aims to promote higher education and secure the future of our girl child and transform them to responsible women of tomorrow. So far 22 lakh girls have been registered under the scheme.

Earlier girls enrolled in Class VIII – XII in schools used to receive an annual scholarship of Rs 500. The scholarship amount was increased to Rs 750 from FY 2015-16. One-time grant of Rs 25000 is provided to each of the unmarried girl student on attaining 18 years of age.

UNICEF has partnered West Bengal Government after scanning the feasibility of the scheme. Department for International Development, United Kingdom and UNICEF selected the scheme for presentation at the ‘Girl Summit 2014’ held at London. West Bengal government won the Silver Medal for the “Kanyasshree Prakalpo” in the Category of “Outstanding Service in Citizen-Centric Service.”

The mission of West Bengal Government is to proactively encourage education among girl child.

 

আন্তর্জাতিক কন্যাদিবসে কন্যাশ্রীদের শুভেচ্ছা মুখ্যমন্ত্রীর

আজ আন্তর্জাতিক কন্যাদিবসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর সব কন্যাশ্রীদের শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন, ‘মেয়েরাই আমাদের সম্পদ, তারাই দেশের ভবিষ্যৎ’।

মমতা ব্যানার্জী নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকার ২০১৩ সালে কন্যা সন্তানদের জন্য ‘কন্যাশ্রী’ প্রকল্প চালু করেন। প্রতি বছর ১৪ আগস্ট ‘কন্যাশ্রী দিবস’ উদযাপন করে রাজ্য সরকার।

মেয়েদের উচ্চ শিক্ষা এবং তাদের ভবিষ্যৎ নিরাপদ ও সুনিশ্চিত করতে রাজ্য সরকারের এই প্রয়াস। এখনও পর্যন্ত ২২ লাখ কন্যা সন্তান এই প্রকল্পের আওতায় রয়েছে। আগে ক্লাস থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত ছাত্রীদের ৫০০ টাকা বৃত্তি প্রদান করা হত। ২০১৫-১৬ অর্থবর্ষে এর পরিমান বৃদ্ধি করে ৭৫০ টাকা করা হয়েছে।

১৮ বছর বয়সের পর অবিবাহিত মেয়েদের উচ্চ শিক্ষার জন্য এককালীন ২৫০০০ টাকা দেওয়া হয় এই প্রকল্পের মাধ্যমে। ইতিমধ্যেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই স্বপ্নের প্রকল্প ইউনিসেফের থেকে অনেক প্রশংসিত হয়েছ।