Bengal Art will Go Global – Bengal to devise export strategy to promote its artisans

0
658
Handicraft of Bengal
Handicraft of Bengal

Bengal to devise export strategy to promote its artisans

Bengal to devise export strategy to promote its artisans

In order to promote various products, including engineering and textile products in the international market, the Bengal government is drafting a comprehensive export strategy for the micro and small scale enterprises in the textile sector.

The main purpose of the move is to create a demand for Bengal’s myriad products in markets abroad. This will not only restore the past glory of Bengal’s textile and other industries, but also help in reviving the economy of medium and small sectors in the state.

A memorandum of understanding has already been signed between the state government and the Export Import Bank of India (Exim Bank).

The Micro, Small and Medium Enterprises (MSME) department has been working towards building infrastructure so that the products could be exported to various countries, boosting sustainable growth in various sectors.

The Bengal MSME department had taken up a series of new projects to contribute to the development of the socio-economic condition of artisans across the state by giving them a platform to showcase their handicrafts. The state government had set up ‘Rural Craft hub Project’ at 11 different locations for this purpose.

The hubs, which are also recognised by UNESCO, have turned into tourist hotspots.

 

আন্তর্জাতিক বাজারে রাজ্যের হস্তশিল্পের প্রসারের উদ্যোগ রাজ্যের

আন্তর্জাতিক বাজারে রাজ্যের হস্তশিল্প সামগ্রীর আরও প্রসার ঘটাতে রাজ্য ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প বিষয়ক দপ্তর একটি রপ্তানি নীতি বা এক্সপোর্ট পলিসি আনার কথা ভাবছে।

এর ফলে বাংলার হৃৎ গৌরব তো ফিরবেই, সাথে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পর বিরাট লাভ হবে। ইতিমধ্যেই Export Import Bank of India (Exim Bank) এর সাথে রাজ্য সরকারের একটি মৌ স্বাক্ষরিত হয়েছে।

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প বিষয়ক দপ্তর এখন রাজ্যে রপ্তানি করার মতো পরিকাঠামো তৈরী করবে যাতে বিদেশে রাজ্যের হস্তশিল্প সামগ্রী পাঠানো যায়।

ইতিমধ্যেই রাজ্যের হস্তশিল্পীদের সামাজিক কল্যাণের জন্য রাজ্য সরকার নানা পদক্ষেপ নিয়েছে। তৈরী হয়েছে ১১টি রুরাল ক্র্যাফট হাব। এই হাবগুলি ইউনেস্কোর প্রশংসাও কুড়িয়েছে।