উন্নয়নে আগ্রহী ১১৫টি জেলায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসারে গুরুত্ব দিয়েছেন গড়করি

0
142
NHAI - India
NHAI - India

উন্নয়নে আগ্রহী ১১৫টি জেলায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসারে গুরুত্ব দিয়েছেন গড়করি

By PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ৮ আগস্ট, ২০২০


কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ ও জাতীয় মহাসড়ক মন্ত্রী ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ মন্ত্রী শ্রী নীতিন গড়করি আজ ভারতীয় শিল্প মহাসঙ্ঘ (সিআইআই) আয়োজিত ‘ইন্ডিয়া @ ৭৫ সামিট : মিশন ২০২২’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে ভাষণ দেন। শ্রী গড়করি বলেন, দেশের ১১৫টি উন্নয়নে আগ্রহী জেলায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পক্ষেত্রের আরও প্রসারের আশু প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। এই জেলাগুলিতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পক্ষেত্রের জিডিপি-তে অবদান অত্যন্ত কম। তাই, এই ক্ষেত্রের ওপর যদি যথার্থ গুরুত্ব দেওয়া যায়, তাহলে তা কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা নিতে পারে।

শ্রী গড়করি আরও জানান, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পক্ষেত্রের আওতায় অতিক্ষুদ্র শিল্প ইউনিটগুলিকে অন্তর্ভুক্তির জন্য একটি কর্মসূচি প্রণয়নের কাজ করছে। এর উদ্দেশ্য হল, ক্ষুদ্র শিল্প সংস্থাগুলির আর্থিক চাহিদা মেটানো। সম্প্রতি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পক্ষেত্রের সঙ্গে সংযুক্ত কর্মসূচির সম্প্রসারণ ঘটানো হয়েছে এবং এই শিল্পক্ষেত্রগুলিতে ৫০ কোটি টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এমনকি, বার্ষিক ২৫০ কোটি টাকা লেনদেন পর্যন্ত সংস্থাগুলিকে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পক্ষেত্রের আওতায় আনা হয়েছে।

শ্রী গড়করি সিআইআই-এর প্রতিনিধিদের দেশে অর্থ ব্যবস্থার সার্বিক উন্নয়নে তাদের মতামত জানানোর পরামর্শ দেন। উদাহরণস্বরূপ তিনি বলেন, চীনে অগ্রণী ১০টি সংস্থা সে দেশের রপ্তানিতে প্রায় ৭০ শতাংশ ভূমিকা নিতে থাকে। এই বিষয়টিকে বিবেচনায় রেখে প্রযুক্তিগত মানোন্নয়ন ঘটিয়ে ভারতেও ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পক্ষেত্রে রপ্তানির নতুন দিগন্ত খুলে দেওয়া যেতে পারে বলে তিনি অভিমত প্রকাশ করেন। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পক্ষেত্রে প্রযুক্তির প্রয়োগ বাড়লে একাধিক সহযোগী শিল্প সংস্থা গড়ে উঠবে বলেও তিনি মনে করেন।

শ্রী গড়করি সড়ক বিমার একটি খসড়া প্রস্তাব জমা দেওয়ার জন্য সিআইআই কে অনুরোধ জানান। এ ধরনের প্রস্তাব কার্যকর হলে সড়ক বিমার ক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক গ্যারান্টির প্রয়োজনীয়তা দূর হবে। সেইসঙ্গে, সড়ক প্রকল্পগুলির আর্থিক চাহিদা মেটানোও দ্রুত সম্ভব হবে এবং তহবিল সংস্থান সহজ হয়ে উঠবে। পক্ষান্তরে প্রকল্পগুলির কাজ দ্রুত শেষ হবে। ভারতে সড়ক ক্ষেত্রের আঙ্গিকে যে দ্রুত পরিবর্তন ঘটছে সে প্রসঙ্গে শ্রী গড়করি বলেন, দ্রুত তহবিল সংস্থান সম্ভব হলে প্রস্তাবিত ২২টি নতুন গ্রিন এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পের কাজ আরও দ্রুত শেষ হবে।