শরীরের ভালো মন্দ – জানুন জেনে রাখুন

0
464
Aghor Babu and Bengali society
Aghor Babu and Bengali society

শরীরের ভালো মন্দ – জানুন জেনে রাখুন

ড: পলাশ বন্দ্যোপাধ্যায় , কলকাতা , ২৫ অগাস্ট ২০২০

■হতাশা থেকে মানুষ মোটা হয়।হতাশায় মানুষ খায় বেশি।শরীর চর্চা করে কম।

■রাত জাগলে এসিডিটির সমস্যা বেশি হয়।রাত জাগলে স্ট্রেস হরমোন বেশি ক্ষরণের কারণে পাকস্থলীতে এসিডের ক্ষরণও বেশি।রাগ,দুশ্চিন্তা ও উত্তেজনাতেও তাই।

■ঘুমের সময় শরীর রিপেয়ারিং মোডে থাকে।যার কারণে সকালে উঠে অনেক সময় দেখা যায় ছোটখাটো ব্যথা বেদনা,কাটা,ছেঁড়া সেরে গেছে।

■বয়ঃসন্ধিকালের ব্রণর একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ হলো এন্ড্রোজেন আধিক্য।এর জন্য প্রচুর ওষুধ খেয়ে কোনো লাভ নেই।

■জল ফুটিয়ে অনেকে তা ছেঁকে নেন।এতে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ছাঁকনি বা কাপড়ের কারণে জলটির পরিশুদ্ধি আবার নষ্ট হল।জলের নিচের সেডিমেন্ট ক্ষতিহীন।

■জ্বরের সময় বেশি করে জল খাবেন।জ্বরে শরীর থেকে বেশি জল বেরিয়ে যায়। স্নান করবেন।এতে শরীরের বর্ধিত তাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে।হালকা জামা কাপড় পরবেন।এতে শরীর থেকে সহজে তাপ নির্গত হয়।

■সুগার,প্রেসার থাইরয়েড সারে না।ওষুধের দ্বারা নিয়ন্ত্রণে থাকে।ওষুধ হঠাৎ করে বন্ধ করে দেবেন না।

■বেশির ভাগ পেটখারাপ ভাইরাসের কারণে।ও.আর.এস ,জল এবং হালকা খাবার খেলে কয়েকদিনেই সেরে যায়।বেশির ভাগ জ্বরও তাই।

■বিশ্বব্যাপী অন্ধত্বের সবথেকে বড় কারণ হলো ভিটামিন এ’র অভাব।সবুজ সব্জি,গাজর, ইত্যাদিতে প্রচুর ভিটামিন এ আছে।

■শরীরে রোদ লাগালে শরীর নিজেই ভিটামিন ডি তৈরি করতে পারে তার জন্য।

■ইদানিং আমাদের দেশে শ্বাসপ্রশ্বাস সংক্রান্ত সমস্যা বেড়ে যাওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ হলো বায়ুদূষণ।

■অনিয়ন্ত্রিত শব্দদূষণ আধুনিক বিশ্বে বধিরত্বের একটি বিশেষ কারণ।

■অপারেশনের কাটা জায়গা জুড়ে স্বাভাবিক হতে সময় লাগে দু বছর।সারার সময় প্রথমে কাটা পড়া নার্ভের কারণে জায়গাটি অবশ থাকে।পরে অতিরিক্ত নার্ভ গজানোর ফলে জায়গাটি বেশি অনুভূতিপ্রবন হয়।

■সাদা চামড়ার থেকে কালো চামড়া শরীরের পক্ষে ভালো।এতে মেলানিন পিগমেন্ট বেশি থাকে,যা সূর্যের আল্ট্রা ভায়োলেট রে ,বি টাইপ থেকে শরীরকে রক্ষা করে,যা ত্বকের ক্যান্সারের কারণ হতে পারে।

■ডায়েটিং করে ওজন কমাতে গেলে শরীর ভাঙে বেশি।পেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়।যেটুকু দরকার তা খেতেই হবে।সঠিক পরিমান ও অনুপাতে।এমনকি স্নেহ পদার্থও শরীরে দরকার। বরং শরীর চর্চার দিকেও নজর দিন।

■শরীর চর্চায় শরীরের প্রতিটি কোষে ঠিকঠাক খাদ্য ও অক্সিজেন পৌঁছয় সঠিক রক্ত সরবরাহের কারণে।এতে শরীর চনমনে থাকে।

■বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্মৃতিশক্তি কমার একটি কারণ হলো বয়সের কারণে স্নায়ু কোষের হ্রাস।আনন্দে থাকলে,সৃষ্টিশীল থাকে,যৌনজীবন স্বাভাবিক থাকলে স্নায়ু ভালো থাকে।

■মাথা ন্যাড়া করলে চুল বাড়েও না,ঘনও হয় না।হেয়ার ফলিকল জন্মের সময় যে সংখ্যায় থাকে তাই থাকে। বাড়ে না।

■যত বেশি জল খাবেন,তত ভালো,এমন নয়।শরীর থেকে সে জল না বেরোলে কিন্তু বিপদ।আপনার কিডনি ঠিক আছে তো?…..

আজ এই পর্যন্ত।ভালো থাকুন সবাই। আগামীদিন সুন্দর হোক ।

পলাশ_বন্দ্যোপাধ্যায়, ২৪.০৮.২০২০

*** Consult your doctor for any medical advice and changes you like to do before you follow the same. These are general advice your case may be different.***