সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের নলতায় ব্যবসায়ী আনারুলের উপর সন্ত্রাসী হামলা, ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন

0
167
সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের নলতায় ব্যবসায়ী আনারুলের উপর সন্ত্রাসী হামলা, ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন
সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের নলতায় ব্যবসায়ী আনারুলের উপর সন্ত্রাসী হামলা, ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন

নলতায় ব্যবসায়ী আনারুলের উপর সন্ত্রাসী হামলা, ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন

তরিকুল ইসলাম লাভলু, নলতা থেকে: সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের নলতার বিশিষ্ট মৎস্য ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক আলহাজ্ব আনারুল ইসলাম এবং তার ছোট ভাই আওয়ামীলীগ নেতা আজমল হোসেনের উপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১২ টার দিকে নলতার মাটিকোমরা মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় আনারুল ইসলামের প্রতিবেশিরা দৌড়ে আসলে হামলাকারীরা ভোঁ দৌড় দিয়ে পালিয়ে যায়। হামলাকারীরা পালানোর সময় আজমল হোসেনের নিয়মিত ব্যবহৃত সোনার চেইনটি ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে জানান আজমল হোসেন সহ স্থানীয়রা।      

সরেজমিনে ও তথ্যসূত্রে জানা যায়, মাটিকোমরা মৌজার সাবেক ২০১ নং খতিয়ানে নলতা-তারালী সড়কের দক্ষিণ পাশে ২৯ শতক জমি। যার মালিক মাটিকোমরা গ্রামের মালেক মোড়ল ও দাউদ মোড়ল গং। তবে জমিটি নিয়ে কয়েক যুগ ধরে সিভিল কোর্টে মামলা চলে আসছে। কোর্টে মামলা চলাকালে বেআইনিভাবে ১ বছর আগে ঐ জমি থেকে ৭ শতক জমি ক্রয় করে মৃত এমান আলীর ছেলে রেজাউল। যে এলাকার সুদখোর নজু নামে পরিচিত বলে জানা যায়। কিন্তু ৭ শতক জমির পরিবর্তে সে ৮ শতক জমি দখল করে আছে বলে অপরপক্ষের অভিযোগ।

এ বিষয়ে শালিসি মিমাংসার নামে পরিকল্পিত ভাবে ব্যবসায়ী আনারুল ইসলামকে তাদের বাড়ির সামনে ডাকে। আনারুল ইসলাম উভয়কে কাগজপত্র দেখানোর কথা বলে। এবং নজু গংদের বলেন, যদি তোমাদের মধ্যে ১ শতক জমি বেশি থাকে তবে মেপে অবশ্যই বাদীপক্ষকে বের করে দিতে হবে।

শালিসদার ও সমাজসেবক আনারুল এমন কথা বলার সাথে সাথে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী মৃত এমান আলীর ছেলে আজগর মোল্লা, রেজাউল নজু ও সাজু লাঠিসোঁটা নিয়ে আনারুলের উপর হামলা করে তাকে আহত করে। তার ভাই আওয়ামীলীগ নেতা আজমল হোসেনের ব্যবহৃত চেইন ছিনিয়ে নেয়। সংবাদ পেয়ে স্থানীয়রা তাদের ধাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়। ঘটনার পর বেলা সাড়ে ৩ টার দিকে কালিগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ হামলাকারীরাদের লাঠি, দা, লোহার রড ইত্যাদি উদ্ধার করে বলে জানা যায়। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানা যায়।