New Hope for Bengali Cinema Business – Praktan to break all record in Box office overseas and Home

0
2405
Praktan 2016 Bengali Movie - Prosenjit Rituporna
Praktan 2016 Bengali Movie - Prosenjit Rituporna

This review is in Bengali. We have a single liner for all non Bengali friends that encourage your friends who love Bengali movie must visit theater for this movie.

Praktan 2016 Bengali Movie - Prosenjit Rituporna

Praktan 2016 Bengali Movie – Prosenjit Rituporna

A nostalgia can only be expressed by heart not by logic. Prosenjit Rituporna Sengupta real and reel life Ex-Factor and still they steals the show.

We thought this review must also have a Bengali extract to link all Bengali’s Heart to connect with the movie.

Some time you can not share even your Ex with his/her Present, though you have left the stage between the act. Praktan is exactly the story with a thin line lineage to Ijjajat of Gulzar casted

Praktan 2016 Bengali Movie - Prosenjit Rituporna
Praktan 2016 Bengali Movie – Prosenjit Rituporna

with Nashiruddin,Rekha,anuradha Patel and Shashi Kappor. But still distinctly different with full Bengali aura.

 

 

Bengali Review:

“প্রাক্তন” যখন প্রসেনজিত ও ঋতুপর্ণা,সৌমিত্র ও সাবিত্রী বাংলা তখন কি করে ঘরে থাকে – বক্স অফিস হাউসফুল ঘরে বাইরে বর্তমান প্রাক্তনে মজে আছে”|

উত্তম সুচিত্রা বা সৌমিত্র অপর্ণা বা প্রসেনজিত ঋতুপর্ণা ম্যাটিনী আইডল বলতে যা বুঝি আপামর বাঙালি আমাদের চায়ের কাপে তুফান এরাই তুলত |

প্রথম দুটি জুটি সময়ের নিয়মেই প্রাক্তন কিন্তু প্রসেনজিত ঋতুপর্ণা অভিমানে প্রাক্তন গত পনেরোটা বছর |ফিরলো এমন ভাবে এ বলে আমায় দেখ তো ও বলে কেমন দিলাম | ঠিক যেখানে শেষ করেছিল সেখানেই ধরল আরো নিপুন ভাবে | দোহাই বুম্বা ঋতু আর রাগ নয় এবার একটু বেলাশেষের আগে এমন আরও কিছু দিয়ে যাও বাংলা সিনেমা কে |

Praktan 2016 Bengali Movie - Prosenjit Rituporna
Praktan 2016 Bengali Movie – Prosenjit Rituporna

আমাদের একটা প্রজন্ম এদের জন্য শুক্রবার সিনেমাতে লাইন দেয়নি | আর ফিরেলো যখন সেই নস্টালজিক যৌথ আইকন | ‘Looking Fresh as new’ সত্যি বয়েস হার মেনেছে রসায়ন আজও আবেদন রাখছে নতুনদের কাছ ও |

না পয়েনজিত থেকে প্রসেনজিত হয়ে ওঠার সময় বা ঋতু থেকে বেগমজান হয়ে ওঠার পথটা দুজনে একাই পারি দিয়েছেন |

দর্শকদের একটা বারো অংশ তাকিয়ে ছিলেন কবে প্রসেনজিতের “অটোগ্রাফ” বেগমজানকে আবার নাড়িয়ে দিয়ে যাবে |

তাই আগ্রহটা ছিল সর্বস্তরে সাথে আশঙ্খা ছিল অতীতের ছায়া যদি গ্রাস করে বর্তমানকে |

শিবপ্রসাদ বা নন্দীতাকে এখনই ধন্যবাদ এত বড় চাহিদার পাহাড় কে তারা সামলেছেন চতুর ভাবে| আর বাঙালি টানটান গল্প শোনার লোভে ভুলে গেছে তারা পনের বছর বাদে আবার বাংলার একনম্বর জুটি কে এক সাথে দেখছে |

গল্প কথাও থেমে যায়নি কথাও আরোপিত বলে মনে হয়নি |

ঠিক তিন দশক আগে গুলজার এর ইজাজত ছবি তা মনে করুন নাসিরুদ্দিন আর রেখা সাথে অনুরাধা প্যাটেল এর অসাধারণ অভিনয় আর ডি বর্মন এর সুর আর আশার গান এক রেলওয়ে ওয়েটিংরুম আর দুই প্রাক্তন এর দেখা |

ক্ষীন গল্পের সুত্র মাইল যায় কিন্তু পরিচালনা ও চিত্রনাট্য এতটাই সজীব যে অনুপ্রেরণা ছাড়া অন্য কোনো যোগ নেই |

পরিচালক ইজাজত কে ওয়েটিং রুম থেকে সচল গাড়ির মধ্যে ধরেছেন এক রেল যাত্রায় বিবাহ নামক প্রতিষ্ঠান কে নানা আঙ্গিকে পরিবেশন করেছেন | প্রসেনজিত ঋতু আর অপরাজিত যেমন ভাঙ্গা গড়া নিয়ে ব্যপ্ত তেমনি সৌমিত্র সাবিত্রী জীবন সায়ান্ননে দাম্পত্য জীবনের শেষ সুধাটুকু উপভোগে ব্যস্ত | আবার বিশ্বনাথ ও স্বস্ত্রীক হনিমুন এর খুনসুটি তুলে ধরেছেন নিপুন ভাবে |

বাংলার ব্যান্ড আইডল চন্দ্রবিন্দু কি সুরজিত বা অনুপম নিজের নিজের চরিত্রে সুন্দর এবং সুঅভিনয় করেছেন |

কিন্তু সিনেমা দেখতে যাবেন সবাই যারা বিবাহিত বা বিবাহে ইচ্ছুক বা অনিচ্ছুক সকলে |

প্রাক্তন বাংলা সিনেমার বানিজ্যে এক নতুন মাইলস্টোন |

একসথে আমেরিকা , কানাডা , দুবাই এবং সারা ভারতে রিলিজ করলো | যা আগামীদিনে নতুন পথের দিশারী |

 

গল্প :

বিচ্ছেদ সে যতই তিক্ততার কারণে হোক না কেন কোথাও মনের কোনে কিছু অনুভূতি বাকি থেকে যায়| হয়ত সময়ের সাথে ফেলে আশা দিনগুলো কোথাও কোনো মূর্ছনা জাগিয়ে তোলে, বেদনাও নতুন করে ভালো লাগে|

সুদীপ্তা(ঋতুপর্ণা) ভালবেসেছিল উজান(প্রসেনজিত) কে , হেরিটেজ ওয়াক এর প্রেমে পরেছিল দুজনে|

কিন্তু মুম্বাই এর ঋতু মেনে নিতে পারেনি কলকাতার প্রসেনজিত কে বা প্রসেনজিত বুঝতে চাইনি আধুনিক শিক্ষিতা ঋতুকে | চিরাচরিত ব্যেক্তিতের সংঘাত আর প্রথম জীবনের অনড় মানসিকতা দুজনের ভালোলাগা কে দ্রুত দুই মেরুতে নিয়ে যায় |

একদিন যারা ছুয়ে গেছিল শরীর আর মন কোনো শর্ত না রেখে, আজ তারা এক ঘরে নিজেদের অচেনা দুই পৃথিবীর মত বিছিন্ন এক বিছানাতে|

দশ বছর পর হঠাত দেখা ট্রেন এর কামরায়|

মুম্বাই থেকে হাওড়া ফ্ল্যাশব্যাক আর বর্তমান মুহুর্ত্ত এর মাঝে অনবদ্য প্রসেনজিত ঋতু অভিনয় আর স্টার ভ্যালু দুটোকে সমান ভাবে কি করে তুলে ধরতে হয় P-R সেটা জানে|

ঋতু যেন বেশি চেষ্টা করেছেন শুধু মাত্র ফেসিআল এক্ষ্প্রেশান দিয়ে অনেক কিছু ছুয়ে যাওয়ার |

যা কাল আমার ছিল আজ অন্য কেউ নিয়ে নিলে খারাপ লাগে কিন্তু মেনে নিতে হয় | মেনে নেয়া আর মনে নেয়া এক জিনিস নয় | অপরাজিতা শক্তিশালী অভিনেত্রী এবং এক স্কেলই চালিয়ে দিয়েছে বাংলার জুরি নম্বর ওয়ান এর সাথে |

শিবপ্রসাদ ও নন্দিতা আপনাদের সবচে বারো সাফল্য যে একটা সিনেমা যা ছেড়ে দর্শক হালের বাইরে যায়নি পাছে এক তা ফ্রেম ও মিস হয় |

শেষ কবে হালের বাইরে এসে বাঙালি সিনেমার কথা আলোচনা করেছে| মজার কথা পনের বছর পর প্রসেনজিত ঋতু অথচ আলোচনা কিন্তু পুরো ছবি নিয়ে আর এখানেই প্রাক্তন আজও প্রাসঙ্গিগ|

দু মিনিটের রোলে শ্বাস্সত ইজ্জাজাতের শশী কাপুর কে মনে পরিয়ে দিলেন |

আর সাবিত্রী হিন্দী সংলাপে অনবদ্য|

বানিজ্য এবং শিল্প দুই যে হাত ধরাধরি করে চলতে পারে তা “প্রাক্তন” নিশ্চিত করেছে |

হাস্যরশ ভাড়ামো হয়ে যায়নি বা করুণ রস ও চোখের জলকে আটকে মেলোড্রামা হতে দেয়নি|

যারা প্রাক্তন বা যারা প্রাক্তন হতে চাইছেন একবার ফিরে দেখুন জীবনের নতুন মানেটা হয়ত অধরা ছিল| অনুভূতি সব সময় ব্যখ্যা করা যায়না কথা কিছু কিছু বুঝে নিতে হয়, প্রাক্তন হয়ে যাওয়ার আগে জীবন কে আর একবার ফিরে দেখা আর সম্পর্কের স্তর গুলো আরো নিবির ভাবে জানা “প্রাক্তন” নিয়ে বাঁচার থেকে বর্তমান কে জানা জরুরি |

 

সময়ের আগে হলে যাবেন প্রথম ফ্রেম থেকে বাংলা ও বাঙালির সূক্ষ দিক গুলো মিস করে যাবেন |

কিছু সময় রিভিউ না পড়ে নিজে দেখে সিদ্ধান্ত নিতে হয় আর “প্রাক্তন” ঠিক সেই রকম এক ভিন্ন স্বাদের ছবি |

আমাদের কাছে ৪.৫ / ৫