এক পাল শুয়োরের বাচ্চা আর একটি দেশের নাগরিকত্ব ? চেনা দেশ অচেনা মানুষ ।

0
180
Follow Netaji Photo by Suman Munshi
Follow Netaji Photo by Suman Munshi

এক পাল শুয়োরের বাচ্চা আর একটি দেশের নাগরিকত্ব ?

এনআরসি আর সিএবি দেশটা এখন খাচ্ছে ভালো। ঠিক যেন শুয়োরের খোঁয়াড়ে এক্পাল শুয়োরের এদিক ওদিক দৌড় আর এক পালের তাদের তাড়িয়ে নিয়ে যাওয়া । কি বিচিত্র এই দেশ সামান্য এক ছুঁতোয় একদল প্রমান করার চেষ্টা করছে তারা নেতাজির থেকেও বড় দেশ ভক্ত আর একদল ঘোলা জলে মাছ ধরতে নেমে পড়েছে ভারতের মুক্তি সূর্য হয়ে ।

দোয়া আর দয়া দুটোই দরকার এই অপরিণামদর্শী প্রবঞ্চক ইতর প্রাণীদের ডিএনএ যুক্ত সকল পক্ষের । যারা অধিকার রক্ষার নাম করে দাঙ্গা বাধানোর চেষ্টা করছে আর যারা অধিকার দেয়ার নাম করে অধিকার কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করছে সেই দু পক্ষ কেই ক্যাপিটাল পানিশমেন্ট দেয়া প্রয়োজন ।

যে দেশে মেয়েদের ধর্ষণ করে মৃত্যুর মুখে ফেলে দেয়া এক নিত্য ঘটনা আর পাবলিক মোমবাতি জ্বালিয়েই শান্ত, সে দেশের নাগরিকত্ব লজ্জার কিনা ভেবে দেখা প্রয়োজন । ভারত সোনার দেশ আর সান্ত সাধুদের দেশ ,যুগ যুগ ধরে সারা পৃথিবী তাই জানে । তুলসীদাস ,শঙ্করাচার্য , বিবেকানন্দ যেমন ছিলেন তেমনি আছেন কবীর , গুরুনানক বা সন্ত তেরেসা ।

এই দেশকে যে অন্তর থেকে ভালোবাসে , নিজের মায়ের মতো মানে , সেই এই দেশের সন্তান দেশের প্রতি দায়বদ্ধতা একমাত্র মাপকাঠি হওয়া উচিত নাগরিকত্বের । ধর্ম,বর্ণ বা রাজনৈতিক বিশ্বাস নয়। তাত্বিক তর্ক চলুক আজীবন কিন্তু অস্ত্র যদি ধরতেই হয় তবে তা দেশের শত্রূদের বিরুদ্ধে ধরা উচিৎ, যারা দেশের সম্পদ লুট করছে , সাধারণ নাগরিকের বেঁচে থাকার শেষ সম্বল কেড়ে নিচ্ছে অস্ত্র হোক সংবিধান তাদের বিরুদ্ধে ।

পঙ্গপালের মতো বংশ বৃদ্ধি করে দেশে প্রতিদিন এক গুচ্ছ দেশদ্রোহী কুসন্তানের জন্ম দেয়া সেও এক অপরাধ । যে শিক্ষা ব্যবস্থা মানুষের মতো মানুষ তৈরী না করে ঘুষখোড় দেশদ্রোহী বা ক্রিমিনাল তৈরী করে এনআরসি হোক তাদের ও । আর এই বিষয় গুলি কোনো এক বিশেষ সম্প্রদায়ের নয় । দয়া করে ধরমের রং ছড়িয়ে বিষয় কে লঘু করবেন না ।

কোনো বিশেষ দেশ থেকে কোনো বিশেষ ধর্মের মানুষ এসেছে বলে এনআরসি নয় বরঞ্চ এনআরসি হোক সঠিক নাগরিক পঞ্জী ও প্লানিং এর জন্য । এক জন ভারতবাসি ও যেন বঞ্চিত না হয় । আর একজন দেশ বিরোধী যেন জন্মসূত্রে ভারতীয় বলে ছাড় না পায় ।

এনআরসি আসুক সেই সকল দুর্নীতি গ্রস্ত নেতা,আধিকারিক আর সাধারণ নাগরিকের পঞ্জী হয়ে যারা দেশের সম্পদ লুট করে , অরাজকতার সৃষ্টি করে ,শিক্ষার নাম কুশিক্ষা দিয়ে দেশ কে তিলে তিলে শেষ করছে তাদের বিরুদ্ধে ।

কোটি কোটি টাকার দুর্নীতি , স্বজন পোষণ আর মধ্যমেধার তোষণ করে পঙ্গু করে দিচ্ছে দেশকে । লাল নীল হলুদ সবুজ দল বদলের খেলায় যারা ওস্তাদ তাদের পেছনে মারুন এক লাথি । নিজের ছেলে বা মেয়ে কে প্রথম দুর্নীতির দিন যদি চড় না মেরে থাকেন ,তবে আজ এনআরসি নিয়ে প্রতিবাদে চিৎকার করবেন না । যখন দেশ কে ফেলে, দল কে সমর্থন করেছেন, অযোগ্যের জন্য স্লোগান দিয়েছেন এক প্যাকেট বিরিয়ানি আর কিছু টাকার জন্য , সেই দিন নিজের ভাগ্য নিজে লিখেছেন , আজ আর দোষ দিয়ে কি হবে ? নেতা খুঁজেছেন নিজের ধর্মের , নিজের জাতের, মানুষের মতো মানুষ খোঁজেন নি , তাই আজ আর কেঁদে কি হবে?

ট্রেন, বাস আর স্কুল পোড়ালেই নাগরিক অধিকার পাবেন ? এক পাল মানুষ দুমুঠো ভাতের জন্য দৌড়োচ্ছে আর একদল তাদের নিজের স্বার্থে দৌড় করাচ্ছে ।

একটা প্রস্তাব আছে সরকার বাহাদুরের কাছে যদি এমন হতো একটা এপ্লিকেশন করুন আর সাথে সাথে পান আমেরিকা ,ইংল্যান্ড ,কানাডা বা ইউরোপের নাগরিকত্ব এই এনআরসি ফর্মের মাধ্যমে ,তবে বোধহয় অর্ধেকের বেশি দেশ খুশি মনে দেশত্যাগ করতো । কিন্তু আমি নিশ্চিত একজন নেতাও দেশ ত্যাগ করতো না , কারণ এমন সুজলা সুফলা দেশ আর সহজে দুর্নীতির দ্বারা কোটিপতি যে ও দেশে হওয়া যাবে না । অশিক্ষিত নেতা শিক্ষিতদের ওপর ছড়ি ঘোরাতে পারবে না যে ।

তাই শুওরের খোঁয়াড়ে গুতো গুঁতি করে যান। আর মানবিক সমস্যার সমাধান না করে নজর অন্য দিকে ঘুরিয়ে রাখুন ।

ভগবানের আশা করবেন না ভগবান নিদ্রা গিয়েছেন গোলযোগ সইতে পারেন না ।

সকালের চা সহযোগে সংবাদপত্রের রোমাঞ্চকর গল্প পড়ে নিজের বিচারবুদ্ধিকে আরো রঙিন চশমার আলোয় আলোকিত করুন ।

জয় হোক স্বাধীন ভারতের নাগরিক আর আমাদের নির্বাচিত সরকারের , গোল্লায় যাক মানুষ আর মানবিকতার ।

একজন ফরাসি দার্শনিকের কথা দিয়ে শেষ করি , ভদ্রলোকের নাম Joseph-Marie, comte de Maistre তাঁর বিখ্যাত উক্তি

“Toute nation a le gouvernement qu’elle mérite”. অর্থাৎ Every nation gets the government it deserves.

নেতাজী ক্ষমা করুন আপনাদের বলিদান আর ত্যাগের এই প্রতিদান প্রাপ্য ছিলো না । ক্ষমা করুন স্বামীজী চণ্ডাল ভারতবাসী ,দরিদ্র ভারতবাসীকে আমার আর ভাই ভাবা হলোনা, বরং ভোট ব্যাঙ্ক ভেবে এগোলে আখেরে লাভ । আর গাধার দলকে যেমন ভাববো তেমনি ভাববে সবকটা যে কলেজ পাস করা গ্রাজুয়েট আসলে পাক্কা ইডিয়ট ।

চলুন নুতুন কিছু ভাঙা যাক, তবে শুরুটা নিজের বাড়ি দিয়ে শুরু করুন, সরকারের ছাপানো টাকা দান করে দিন গরিব দুঃখী দের , নেতারা গদি ছেড়ে দিন প্রতিবাদে । কি বললেন পাগল নাকি ? তবে ভাই নিজেদের ট্যাক্সের টাকায় করা পাবলিকের প্রপার্টি কেন ভাঙছেন ? সেয়ানা দেশ ভক্তদের কারণেই আজ এই দুর্গতি ।

আসলে আমাদের এই দেশের নাগরিক হওয়ার অধিকারী নেই , আমরা যে দেশের থেকে নিজের ভালো এখন বেশি ভালো বুঝি ।

“সত্য সেলুকাস কি বিচিত্র এই দেশ ।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here