বিদেশে উৎপাদিত কোভিড-১৯ টিকার নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবহার বিধি জারি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের

0
38
ShyamSundarCoJwellers

বিদেশে উৎপাদিত কোভিড-১৯ টিকার নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবহার বিধি জারি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের

By PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১৫ এপ্রিল, ২০২১

কেন্দ্রীয় সরকার আমূল সংস্কারমূলক পদক্ষেপ হিসেবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আপৎকালীন ব্যবহার তালিকায় নথিভুক্ত বিভিন্ন দেশের কোভিড-১৯ টিকার ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবহার বিধি কার্যকর করতে অনুমোদন দিয়েছে। সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে একদিকে যেমন ভারতে বিদেশে উৎপাদিত টিকার যোগান যেমন বাড়বে, অন্যদিকে তেমনই নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবহার বিধির দরুণ দেশীয় টিকার উৎপাদনও বৃদ্ধি পাবে। দ্বিমুখী এই কৌশলের ফলে দেশে টিকা উৎপাদন বাড়বে এবং যোগান ও সরবরাহ আরও সুনিশ্চিত হবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আপৎকালীন ব্যবহার তালিকায় নথিভুক্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, গ্রেট ব্রিটেন ও অন্যান্য দেশে সীমিত হারে ব্যবহৃত কোভিড-১৯ টিকার ভারতেও ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা জারি করা হয়েছে। এই প্রেক্ষিতে সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ডস কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন (সিডিএসসিও) বিদেশি টিকাগুলি সীমিত ব্যবহারের ক্ষেত্রে একাধিক পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করেছে :

. সিডিএসসিও কোভিড টিকা সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ গোষ্ঠীর সুপারিশের ভিত্তিতে বিদেশে অনুমোদিত টিকাগুলির জন্য নির্দিষ্ট নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা স্থির করতে বিস্তারিত নীতি-নির্দেশিকা তৈরি করবে।

. এই নীতি-নির্দেশিকা সিডিএসসিও-র ওয়েবসাইটে দেওয়া হবে। এরপর সিডিএসসিও সংশ্লিষ্ট সকলের মধ্যে এই নীতি-নির্দেশিকাগুলি প্রচারের কাজ করবে।

. আপৎকালীন পরিস্থিতিতে বিদেশে উৎপাদিত টিকার সীমিত ব্যবহারের জন্য যে সমস্ত আবেদন পাওয়া গেছে অনুমোদনের জন্য সেগুলি সিডিএসসিও-তে জমা করতে হবে। কোনও বিদেশি টিকা উৎপাদক সংস্থা বা তার ভারতীয় সহায়ক সংস্থা বা দেশে অনুমোদিত এজেন্টের মাধ্যমে ওই টিকার সীমিত ব্যবহারের জন্য আবেদন করা যেতে পারে।

. আপৎকালীন পরিস্থিতিতে ওই ধরনের টিকার সীমিত ব্যবহারের জন্য সিডিএসসিও জমা করা আবেদনগুলি খতিয়ে দেখবে এবং ডিসিজিআই ওই আবেদনপত্রগুলির ব্যাপারে তিনটি কাজের দিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত নেবে যে ওই টিকার ব্যবহারে অনুমতি দেওয়া যায় কিনা। 

. এরপর ডিসিজিআই একাধিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিদেশে উৎপাদিত টিকাগুলি ভারতে আপৎকালীন সীমিত ব্যবহারের বিষয়ে অনুমতি দেবে। 

. জাতীয় কোভিড-১৯ টিকাকরণ কর্মসূচির আওতায় সুনির্দিষ্ট নীতি-নির্দেশিকা মেনে বিদেশি টিকার ব্যবহার করা হবে।

. প্রথম যে ১০০ জন সুফলভোগীকে ওই টিকা দেওয়া হবে টিকাদানের পরবর্তী সাতদিন তার পরিণাম পর্যালোচনা করে দেখা হবে। এই ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে টিকাটির ব্যাপক প্রয়োগে অনুমতি দেওয়া হবে। 

. যে সংস্থার পক্ষ থেকে টিকার ব্যবহারের আবেদন জানানো হবে, তাদেরকে ৩০ দিনের মধ্যেই ক্লিনিকাল ট্রায়াল বা মানব দেহে কার্যক্ষমতা যাচাইয়ের পরীক্ষা শুরু করতে হবে। 

. আপৎকালীন পরিস্থিতিতে ব্যবহারের জন্য বিদেশি টিকাগুলির সীমিত ব্যবহারের আবেদনপত্রের সঙ্গে আমদানি সংক্রান্ত আবেদনপত্র, ক্লিনিকাল ট্রায়াল সংক্রান্ত প্রোটোকল এবং আমদানি অনুমতি সংক্রান্ত নথিপত্র জমা করতে হবে। 

. সিডিএসসিও-র বর্তমান নীতি-নির্দেশিকা অনুযায়ী ব্যাচ অনুযায়ী টিকা ব্যবহারে অনুমতি দেবে। সেন্ট্রাল ড্রাগস ল্যাবরেটরি প্রতিটি ব্যাচ অনুযায়ী টিকা প্রয়োগের জন্য কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেবে। এরপর এই টিকাগুলি জাতীয় কোভিড-১৯ টিকাকরণ কর্মসূচির নীতি-নির্দেশিকা অনুযায়ী ব্যবহার করা হবে। 

. সেন্ট্রাল ড্রাগস ল্যাবরেটরির অনুমতি পাওয়ার পরই কোভিড টিকার ব্যবহার করা যাবে। প্রাথমিকভাবে ১০০ জন সুফলভোগীকে টিকা দেওয়া হবে এবং এ সংক্রান্ত তথ্য সিডিএসসিও-র কাছে জমা করতে হবে।

. টিকা মানব দেহে প্রয়োগের পর তার কার্যকরিতা সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য সিডিএসসিও পর্যালোচনা করে দেখবে। এরপর তথ্যের ভিত্তিতে সিডিএসসিও সন্তুষ্ট হলে টিকা ব্যবহারের অনুমতি মিলবে। 

. মানব দেহে প্রয়োগের ফলাফলের ভিত্তিতে ডিসিজিআই আপৎকালীন পরিস্থিতিতে টিকার সীমিত ব্যবহারে অনুমতি দেওয়ার বিষয়টি পর্যালোচনা করবে।

Advertisements
IBGNewsCovidService
Bloodrush-2
USD