তেজস্ক্রিয়তা অঙ্কলজিতে একটি বিপ্লব, প্রোটন রশ্মি থেরাপি, ক্যান্সারের রোগীদের জন্য একটি নতুন আসার আলো নিয়ে এসেছে

0
774
Proton Beam Therapy, a revolution in radiation oncology, brings a new ray of hope to cancer patients
Proton Beam Therapy, a revolution in radiation oncology, brings a new ray of hope to cancer patients
0 0
Azadi Ka Amrit Mahoutsav

InterServer Web Hosting and VPS
Read Time:12 Minute, 35 Second

তেজস্ক্রিয়তা অঙ্কলজিতে একটি বিপ্লব, প্রোটন রশ্মি থেরাপি, ক্যান্সারের রোগীদের জন্য একটি নতুন আসার আলো নিয়ে এসেছে

  • প্রোটন রশ্মি থেরাপির সাথে চিকিৎসা করা রোগীরা তাদের সফল অভিজ্ঞতাগুলি শেয়ার করেছেন

কোলকাতা, 3 মার্চ, 2023: ভারতে সবচেয়ে ব্যাপক এবং উন্নত ক্যান্সার পরিচর্যা প্রদান করার একটি মিশনের সাথে, দক্ষিণ এশিয়া মধ্য প্রাচ্যের প্রথম এবং একমাত্র প্রোটন থেরাপি কেন্দ্র, অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার সেন্টার (এপিসিসি), একটি ভিন্ন ধরনের ব্রেন টিউমারের জন্য কেজন 21-বছর-বয়সী কোলকাতাবাসী মহিলাকে প্রোটন রশ্মি থেরাপি (পিবিটি) দিয়ে সফলভাবে চিকিৎসা করেছে।

মিস মেধাশ্রী স্যান্যাল সিজার বা একধরনের হৃদরোগে ভুগছিলেন যা 2019 সাল থেকে ইইজি এবং ওষুধ দিয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছিল। 2021-এর জুন, মেয়েটির ডবল দৃষ্টির অভিজ্ঞতা হওয়া শুরু হয় এবং কোলকাতায় একটি এমআরআই ব্রেন স্ক্যানের জন্য যান, যাতে তার ডান দিকের টেম্পোরাল লোবে 7×4.8×3.7 সেমি আকারের একটি শক্ত সিস্টজাতীয় ক্ষত দেখতে পাওয়া যায়। কলকাতার এক হাসপাতালে তার ডান দিকের টেম্পোরাল ক্র্যানিওটোমি করা হয় এবং ক্ষতটি সরিয়ে ফেলা হয়। পরে, মেয়েটির একটি এমআরআই করা হয় যাতে তার ডান দিকের টেম্পোরাল লোবে 0.7 সেমি আকারের আরেকটি ক্ষত দেখা যায়। অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার সেন্টারে ডঃ রুপেশ কুমার ও টিমের নিউরো ন্যাভিগেশনের অধীনে তার রি-এক্সপ্লোরেশন করা হয় এবং টিউমারটি প্রায়-পুরোটি সরিয়ে ফেলা হয়। অস্ত্রোপচারের পরে, তার চিকিৎসাগত পর্যালোচনায় দেখা যায় যে ক্লাসিকাল প্লেওমরফিক জ্যান্থঅ্যাস্ট্রোসায়টোমা মর্ফোলোজির সাথে টিউমারের একটি খুবই হালকা অবশিষ্টাংশ রয়ে গেছে, কিন্তু টিউমারের বেশিরভাগ উপাদানই ছিল একটি ইনফিলট্রেটিং গিলোমা যার জন্য তাকে ইন্টেন্সিটি-মডুলেটেড প্রোটন থেরাপির (আইএমপিটি) একটি সেশনের মাধ্যমে চিকিৎসা করা হয়েছিল। থেরাপির পরে, একটি এমআরআই-এ দেখা যায় যে রোগটির কিছুই আর অবশিষ্ট নেই। এপিসিসি-তে উপযুক্ত চিকিৎসাগত হস্তক্ষেপের সুবাদে, রোগী ভালোভাবে সেরে ওঠেন এবং অব্যাহতভাবে একটি স্বাভাবিক জীবন যাপন করেন।

ভারতে, 2022 সালে ক্যান্সারের ঘটনার কেসগুলির আনুমানিক সংখ্যা হল 14,61,427। জাতীয় ক্যান্সার নিবন্ধন কর্মসূচী (এনসিআরপি)-এর থেকে প্রাপ্ত একটি সাম্প্রতিক উপলভ্য ডেটা অনুযায়ী, 2020 সালে পশ্চিমবঙ্গে ক্যান্সারের ঘটনার আনুমানিক সংখ্যা ছিল 1,16,900। রাজ্যে একই বছরে ক্যান্সারের থেকে মৃত্যুর আনুমানিক সংখ্যা ছিল 68,600। কোলকাতায়, এনসিআরপি 2020 সালে 33,800টি ক্যান্সারের ঘটনার কেসের আনুমানিক হিসাব করেছিল। পশ্চিমবঙ্গে সবচেয়ে বেশি যে ধরনের ক্যান্সার দেখা যায় সেটি হল ব্রেস্ট ক্যান্সার, ওরাল ক্যান্সার, সার্ভিকাল ক্যান্সার, লাং ক্যান্সার এবং কোলোরেক্টাল ক্যান্সার। 

আন্তর্জাতিক ক্যান্সার নিবন্ধন সমিতি (আইএআরসি) অনুযায়ী, ব্রেন টিউমারের কারণে প্রতি বছর 24,000-এরও বেশি মানুষ মারা যান। এখনও পর্যন্ত, এপিসিসি 300টিরও বেশি ব্রেন টিউমারের কেসের চিকিৎসা করেছে, যার মধ্যে 12টি কোলকাতা থেকে।

অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার সেন্টার চেন্নাই-এর রেডিয়েশন অঙ্কলজির সিনিয়ার কনসালট্যান্ট, ডঃ স্বপ্না নাঙ্গিয়া বলেন, “প্রোটন রশ্মি থেরাপি হল তেজস্ক্রিয়তা থেরাপির একটি অত্যন্ত উন্নত প্রকার যা ক্যান্সার চিকিৎসায় চমৎকার নির্ভুলতা এবং কার্যকারিতা অফার করে পশ্চিমবঙ্গে, ক্যান্সার একটি গুরুতর স্বাস্থ্য সংক্রান্ত উদ্বেগ যেখানে প্রতি বছর স্তন, সার্ভিকাল, লাং ও ওরাল ক্যান্সারের প্রায় 42,000 নতুন কেস ধরা পড়ে অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার সেন্টার অত্যাধুনিক পেন্সিল রশ্মি স্ক্যানিং প্রযুক্তিতে সজ্জিত, যা চারপাশের সুস্থ কলাগুলির উপর ক্ষতি ন্যূনতম করে শুধুমাত্র টিউমারে প্রোটন রশ্মি নিখুঁতভাবে ফেলতে দেয় এটি মস্তিস্ক, খুলির পাদদেশ, মাথা ঘাড়ের অঞ্চল বা ফুসফুসের মতো সংবেদনশীল এলাকাগুলি, যেখানে প্রাথগত তেজস্ক্রিয়তা থেরাপি সুস্থ কলাগুলিতে উল্লেখযোগ্য ক্ষতি করতে পারে, সেখানে অবস্থিত টিউমারগুলির জন্য বিশেষভাবে সুবিধাজনক গবেষণায় দেখাগেছে যে প্রোটন থেরাপি বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার সারিয়ে তোলা বা নিয়ন্ত্রণ করায় চমৎকার পরিণতি প্রদান করার পাশাপাশি চিকিৎসার তাৎক্ষনিক এবং দীর্ঘমেয়াদী পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলিও ন্যূনতম করে অবশেষে, প্রোটন থেরাপি রোগীর বেঁচে থাকার সম্ভাবনাকেই শুধু উন্নত করে না বরং চিকিৎসার পরে তাদের জীবনের মানও সমৃদ্ধ করে

মিস মেধাশ্রী স্যান্যাল বলেন, “আমার ক্যান্সারের সফরে পাওয়া অতি-প্রয়োজনীয় চিকিৎসার জন্য অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার সেন্টারের কর্মীদের যথেষ্ট পরিমাণে ধন্যবাদ জানানোর ভাষা আমার নেই আমার মেডিকেল টিম ও সহায়তা কর্মীদের থেকে আমি যে যত্ন ও মনোযোগ পেয়েছি তা অসাধারণ তাদের আচরণে মনে হয়েছিল তারা যেন শুধু আমার উপরই মনোযোগ দিচ্ছে, এবং প্রোটন রশ্মি থেরাপির থেকে অনুকূল ফলাফল পাওয়া গিয়েছিল আমি তাদের অভিজ্ঞতা, সহানুভূতি, এবং উৎসর্গ, যা আমাকে আমার অসুস্থতা কাটিয়ে উঠে একটি সুস্থ জীবনে ফেরে যেতে সাহায্য করেছিল, তার জন্য কৃতজ্ঞ

“এপিসিসি-তে সার্ভিকো-মেডুলারি পাইলোসায়টিক অ্যাস্ট্রোসায়টোমার জন্য আমার চিকিৎসা ছিল একটি সার্বিক অভিজ্ঞতা ডাক্তার এবং ক্লিনিকাল কর্মীরা আমার পছন্দগুলিকে অত্যন্ত বিবেচনা করতেন এবং তাদের কাছে একটি বিস্তারিত চিকিৎসা পরিকল্পনা ছিল ব্রেন টিউমারের সাথে আমার লড়াইয়ে ইন্টেন্সিটি-মডুলেটেড প্রোটন থেরাপিই ছিল আসল হাতিয়ার পরিবেশটি এমনই ছিল যে আমার হাসপাতাল বলে মনেই হয়নি,” বলেন মি নবদিয়া জেমিন মনসুখভাই, এপিসিসি-তে যার চিকিৎসা করা হয়েছিল

প্রোটন থেরাপি চিকিৎসার প্রধান সুবিধা হল এই যে প্রোটনগুলি ক্যান্সারে আক্রান্ত টিউমারের দিকে যেতে যেতে ধীরে ধীরে তাদের শক্তি জমা করতে থাকে এবং শরীরের অধিকতর ক্ষতি না করে সরাসরি টিউমারে বেশিরভাগ তেজস্ক্রিয়তার ডোজ জমা করে আর এইভাবে কোনো জটিলতা ছাড়া সুস্থ কলা এবং অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ বজায় রাখে। প্রোটন থেরাপি শরীরের খুলির নীচের অঞ্চল যেখানে অন্যথায় চিকিৎসা করা কঠিন সেখানকার মতো কয়েকটি সবচেয়ে কঠিন এলাকাগুলিতে অবস্থিত বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সারকে শুধু সেই জায়গাতেই চমৎকারভাবে নিয়ন্ত্রণ করে বলে দেখা গেছে। পেন্সিল রশ্মি স্ক্যানিং, অত্যন্ত নিখুঁত ইমেজ নির্দেশিকা এবং মেশিনের সেট আপে অসাধারণ পরিমার্জনা সহ এই প্রযুক্তিতে সাম্প্রতিক বিরাট সাফল্যগুলি গত কয়েক বছরে সারা বিশ্ব জুড়ে হাসপাতালগুলিকে এই প্রযুক্তি গ্রহণ করার দিকে চালিত করেছে।

প্রোটন থেরাপি মস্তিষ্ক ও মেরুদণ্ডের টিউমার, খুলির নীচের টিউমার, ওরাল ক্যান্সার, গ্যাস্ট্র-ইন্টেস্টিনাল ক্যান্সার, হাড় ও নরল কলার টিউমার, স্তন ক্যান্সার, থোরাসিক ক্যান্সার (ফুসফুসের ক্যান্সার), জেনিটোরিনারি ক্যান্সার (প্রস্টেট ক্যান্সার) এবং প্রধানত লিউকোমিয়া ছাড়া শিশুদের ক্যান্সারের মতো বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য উৎসাহের সাথে গ্রহণ করা হচ্ছে।

#WinningOverCancer

 অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার সেন্টার (এপিসিসি),চেন্নাই, ভারত সম্পর্কে:

অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার সেন্টার হল দক্ষিণ এশিয়া ও মধ্য প্রাচ্যের সবচেয়ে আধুনিক ও প্রথম প্রোটন থের্পাই কেন্দ্র এবং ভারতের প্রথম জেসিআই-স্বীকৃত ক্যান্সার হাসপাতাল। এটি নিদানিক অপারেশনে প্রোটন রশ্মি থেরাপি সমন্বিত দেশের প্রথম এবং একমাত্র হাসপাতাল। এপিসিসির ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য অবলম্বন করা পন্থার সবচেয়ে অন্তর্নিহিত স্তরে রয়েছে এর জোরালো বহু-শৃঙ্খলাপরায়ণ প্ল্যাটফর্ম; অত্যন্ত দক্ষ কর্মী যারা একটি ক্যান্সার পরিচালনা দল (সিএমটি) গতঃন করতে একসাথে এসেছেন। প্রতিটি সিএমটি তার রোগীদের জন্য সবচেয়ে সেরা সম্ভাব্য পরিণতি প্রদান করার উপর মনোযোগ দেয়। এই মুকুটে আরও একটি রত্ন হল ভারতের প্রথম ও একমাত্র স্থান-নির্দিষ্ট রোবোটিক অঙ্কলজি প্রোগ্রামের সাম্প্রতিক সূচনা।

About Post Author

Editor Desk

Antara Tripathy M.Sc., B.Ed. by qualification and bring 15 years of media reporting experience.. Coverred many illustarted events like, G20, ICC,MCCI,British High Commission, Bangladesh etc. She took over from the founder Editor of IBG NEWS Suman Munshi (15/Mar/2012- 09/Aug/2018 and October 2020 to 13 June 2023).
Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %
Advertisements

USD





LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here