আশার আলো দেখাল মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, টিএভিআর পদ্ধতি তে সুস্থ হওয়ার ফর্মুলা

0
931
আশার আলো দেখাল মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, টিএভিআর পদ্ধতি তে সুস্থ হওয়ার ফর্মুলা
আশার আলো দেখাল মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, টিএভিআর পদ্ধতি তে সুস্থ হওয়ার ফর্মুলা
0 0
Azadi Ka Amrit Mahoutsav

InterServer Web Hosting and VPS
Read Time:15 Minute, 56 Second

আশার আলো দেখাল মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, টিএভিআর পদ্ধতি তে সুস্থ হওয়ার ফর্মুলা

~২০টির বেশি টিএভিআর পদ্ধতিতে অস্ত্রোপচার করেছে মেডিকা কার্ডিওলজি বিভাগ এখনও পর্যন্ত~

কলকাতা, ১০ মার্চ ২০২৩: মেডিকা গ্রুপ অফ হসপিটাল, পূর্ব ভারতের সবচেয়ে বড় প্রাইভেট হসপিটাল চেন, একটি প্যানেল আলোচনার আয়োজন করেছিল ‘ট্রান্সক্যাথিটার ভালভ রিপ্লেসমেন্ট ‘ বিষয়ে কলকাতার পিয়ারলেস ইন হোটেলে। এই আলোচনার মূল লক্ষ্য হল সাধারণ মানুষ এবং সামগ্রিক ভাবে অনেক বেশি মানুষের মধ্যে তথ্য পৌঁছে দেওয়া যে সাধারণ হার্ট ক্যাথিটারের সাহায্যে হার্ট ভালভ রিপ্লেসমেন্ট করা ক্যাথ ল্যাবের মধ্যে যেখানে পুরো বিষয়টির তত্ত্বাবধানে থাকবেন কার্ডিয়াক সার্জেনরা এবং পদ্ধতিটি সম্পন্ন হবে একটি সার্জিক্যাল অপারেশন থিয়েটারে, যেখানে দীর্ঘ সময়ে অ্যানাসথেসিয়া এবং ভেন্টিলেশনের সুযোগ থাকবে।

কার্ডিয়াক ক্যাথিটারের সাহায্যে আওরটিক ভালভ রিপ্লেসমেন্ট পদ্ধতিকে বলা হয়ে থাকে ট্রান্স ক্যাথিটার আওরটিক ভালভ রিপ্লেসমেন্ট অথবা টিএভিআর (TAVR)। মেডিকা ইতিমধ্যেই এরকম ২০টির বেশি কেস সফলভাবে করেছে শেষ সাড়ে তিন বছরে এবং সংখ্যাটা রোজ বাড়ছে। এই প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন প্রফেসর ডঃ রবীন চক্রবর্তী, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান এবং সিনিয়র ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট, মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, ডঃ দিলীপ কুমার, ডিরেক্টর, কার্ডিয়াক ক্যাথ ল্যাব – সিনিয়র কনসালটেন্ট ইন্টারভেনশন কার্ডিওলজিস্ট এবং ইলেকট্রোফিজিওলজিস্ট, মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল এবং ডঃ অনুপ ব্যানার্জি, সিনিয়র কনসালটেন্ট, কার্ডিওলজি বিভাগ, মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল।

টিএভিআর (TAVR) পদ্ধতি এখন সর্বত্র বহু প্রচারিত এবং সারা বিশ্বে সব মিলিয়ে ৫০টি দেশের ১২০,০০০ রোগীর উপর এই পদ্ধতি সহকারে অস্ত্রোপচার হয়েছে। ভারতে শেষ দশ বছরে ৫০০০ টি ক্ষেত্রে এই পদ্ধতির প্রয়োগ হয়েছে। পূর্ব ভারতে সবচেয়ে বেশি টিএভিআর (TAVR) পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়েছে মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটালে যেখানে অভিজ্ঞ এবং কর্ম উদ্যোগী ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্টদের টিম দায়িত্বে থেকেছে। এই টিমকে নেতৃত্ব দিয়েছেন বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডঃ রবীন চক্রবর্তী এবং ক্যাথ ল্যাবের ডিরেক্টর ডঃ দিলীপ কুমার। এখানে যেই গুরুত্বপূর্ণ দিক মাথায় রাখতে হবে যে বিশ্বব্যাপী এই ট্রান্স ক্যাথিটার ভালভ রিপ্লেসমেন্ট পদ্ধতি প্রয়োগ করার দায়িত্বে থেকে এসেছে হার্ট টিম (heart team), যেখানে রয়েছে  সিনিয়র ইন্টার ভেন শনাল কার্ডিওলজিস্ট, কার্ডিয়াক অ্যানাসথেসিস্ট, নন ইনভেসিভ কার্ডিওলজিস্ট, ক্লিনিক্যাল কার্ডিওলজিস্ট এবং সাথে টেকনিশিয়ান এবং অভিজ্ঞ নার্সিং স্টাফ।

এই ঘন্টাখানেকের অনুষ্ঠানে আলোচনা হয় বিভিন্ন ক্লিনিক্যাল বিষয়ের উপর, যার মধ্যে ছিল অত্যাধুনিক টিএভিআর ম্যানেজমেন্ট। এর সাথে এই প্রযুক্তির কি কি কেস স্টাডিতে ব্যবহার হয়েছে তা তুলে ধরা হয়। এছাড়া বর্তমানে এই টিএভিআর পদ্ধতির ভারতে কি অবস্থা এবং সাফল্যের হার কি রকম, সেই নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

টিএভিআর (TAVR) নিয়ে বলতে গিয়ে প্রফেসর ডঃ রবীন চক্রবর্তী, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান এবং সিনিয়র ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট, মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল জানান,” যখন হার্ট ভলভের অস্ত্রোপচার হয়, তখন সেটি একটি ওপেন হার্ট সার্জারি পুরোদস্তুর অ্যানেসথেসিয়ার মধ্যে, যেখানে ভালভগুলো বদলে দেওয়া হয়। তবে এখন ভালভ নিয়ে কিছু করতে গেলে সার্জেনদের আর হার্ট ওপেন করে অস্ত্রোপচার করার প্রয়োজন নেই। এর কারণ হল ট্রান্সক্যাথিটার ভালভ রিপ্লেসমেন্ট পদ্ধতি এখন সাধারণ রীতি হয়ে দাঁড়িয়েছে যে কোন ভালভ বদল করার পদ্ধতিতে। এই ক্ষেত্রে অ্যানেসথেসিয়া অনেক কম পরিমানে দিলেই চলে এবং সংশ্লিষ্ট রোগী অস্ত্রোপচারের পর খুব কম দিনের মধ্যেই রিলিজ পেয়ে বাড়ি ফিরতে পারেন। যখন আওরটিক ভালভে (aortic valve) কোন ট্রান্সক্যাথিটার ভালভ রিপ্লেসমেন্ট করা হয় তখন পুরো পদ্ধতিটা বলা হয়ে থাকে ট্রান্সক্যাথিটার আওরটিক ভালভ রিপ্লেসমেন্ট (TAVR)। তবে বলাই বাহুল্য, সার্জিক্যাল আওরটিক ভালভ রিপ্লেসমেন্ট এর ক্ষেত্রে যা সময় লেগে থাকে সাধারণত, এই টিএভিআর (TAVR) এর ক্ষেত্রে অনেকটাই কম সময় লাগে। ভারতে ২০১৬ সালে

এই ট্রান্সক্যাথিটার ভালভ রিপ্লেসমেন্ট পদ্ধতি চালু হয় এবং খুব দ্রুত এটি জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। মেডিকাতে আমরা শেষ সাড়ে তিন বছরে ২০টির বেশি ট্রান্সক্যাথিটার ভালভ রিপ্লেসমেন্ট পদ্ধতি অবলম্বন করে অস্ত্রোপচার করেছি। পূর্ব ভারতের ক্ষেত্রে এই সংখ্যাটি সর্বোচ্চ।” এছাড়া তিনি বলেন,” মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটালে হার্ট টিম এখন হার্টের জটিল ভালভ বদলের অস্ত্রোপচার করতে সক্ষম ক্যাথিটারের সাহায্যে যেখানে খুব কম সময় হাসপাতালে থাকতে হয়। আমাদের সেন্টারে এখনও পর্যন্ত কোন জটিলতা দেখা দেয়নি এই পদ্ধতি অবলম্বন করার সময়।”

মেডিকায় হওয়া তিনটি জটিল টিএভিআর (TAVR) কেসের কথা আলোচনা করেন প্যানেল সদস্যরা।

কলকাতার ৭২ বছর বয়সী এক মহিলার রিম্যাটিক হার্টের সমস্যা ধরা পড়ে। তার ওপেন হার্ট সার্জারি হয় এবং মিত্রাল ভালভ রিপ্লেসমেন্ট সার্জারি হয়েছিল আগে। কিন্তু তার প্রস্থেটিক মিট্রাল ভালভের অবস্থা খারাপ হচ্ছিল। এর ফলে তার শ্বাস প্রশ্বাসে সমস্যা হচ্ছিল এবং দৈনন্দিন কাজ কর্ম করার ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েছিলেন। এই অবস্থায় যখন মেডিকায় ভর্তি হলেন, তখন মেডিকার কার্ডিওলজি টিমের ডাক্তারদের সম্যক ধারণা হয়েছিল যে মিট্রাল ভালভ ছাড়াও আওরটিক ভালভের ক্ষতি হয়েছে। ওনার দুটো ভালভের বদলই প্রয়োজন। উনি দীর্ঘ সময় ধরে সাধারণ অ্যানস্থেসিয়া পদ্ধতি প্রয়োগের কেস ছিলেন না কারণ ওনার শারীরিক অবস্থা সেরকম ছিল না এবং ওনার ফুসফুসের সমস্যা ছিল। তাই হার্ট টিম সিদ্ধান্ত নেয় দুটো হার্টের ভালভের ট্রান্সক্যাথিটার রিপ্লেসমেন্টের সিদ্ধান্ত নেয়। সাধারণ চিকিৎসা বিজ্ঞানে রিম্যাটিক ভালভের সমস্যায় দুটো ভালভের ট্রান্স ভালভ রিপ্লেসমেন্ট বলা নেই। বলাই বাহুল্য যে পদ্ধতিটি বেশ চ্যালেঞ্জিং এবং জটিল। তবে মেডিকার হার্ট টিম সফল ভাবে এই অস্ত্রোপচার করেছে, যা একটি মেডিকা হসপিটালে কার্ডিওলজিস্টদের একটি মাইফলক ঘটনা বলা যেতে পারে ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজির ইতিহাসে। যেহেতু রিম্যাটিক হার্টের অসুখ একটি বিরল ঘটনা যা সাধারণত দেখা যায় দক্ষিণ এশিয় দেশগুলোতে, মেডিকা টিম ভারতে প্রথমবার ট্রান্স ক্যাথিটারের ব্যবহার হয় কোন রোগীর দুটি ভালভকে বদলের জন্য।

দ্বিতীয় উল্লেখযোগ্য ঘটনাটি হল, কলকাতার একজন ৬৮ বছরের ভদ্রলোক যার বাঁদিকের প্রধান করোনারি আর্টারিতে অনেকটা ব্লক ধরা পড়ে। এছাড়াও দেখা যায় যে তার আওরটিক ভালভের অবস্থাও ভালো নয়। রোগীর শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল না, শ্বাস প্রশ্বাসের সময় কষ্ট তো ছিলই আর বুকের ব্যাথার সাথে ছিল কিডনির রোগ। এই অবস্থায় সার্জিক্যাল ভালভ রিপ্লেসমেন্ট ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। মেডিকার অভিজ্ঞ হার্ট টিম অনেক পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রোগীর বাঁদিকের করোনারি আর্টারির অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করা হল টিএভিআর (TAVR) পদ্ধতির সাথে। অল্প অ্যানেসথেসিয়া প্রয়োগ করা হয়েছিল এবং সব মিলিয়ে পুরো টিএভিআর (TAVR) পদ্ধতি প্রয়োগ করতে সময় লেগেছিল মাত্র ৪০ মিনিট। বাঁদিকের প্রধান আর্টারিতে একটি স্টেন্ট বসানো হল এবং টিএভিআর (TAVR) পদ্ধতির সাহায্যে আওরটিক ভালভ বদলে লাগানো হল প্রস্থেটিক ভালভ টিএভিআর (TAVR) পদ্ধতি অবলম্বন করে। পরের দুই সপ্তাহের মধ্যে আরো একজন ভর্তি হলেন, যার ক্ষেত্রও একই পদ্ধতি অবলম্বন করে হার্ট টিম। ভারতে এই ধরনের জটিল কেস প্রথমবার দেখা গেল।

ডঃ দিলীপ কুমার, ডিরেক্টর, কার্ডিয়াক ক্যাথ ল্যাব – সিনিয়র কনসালটেন্ট ইন্টারভেনশন কার্ডিওলজিস্ট এবং ইলেকট্রোফিজিওলজিস্ট, মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, বলেন,” টিএভিআর পদ্ধতি জনপ্রিয় হওয়ার অন্যতম কারণ হল রোগীর দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠা, সংক্রমণের অনেক কম সম্ভাবনা এবং কম খরচ। অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টির মত এই টিএভিআর পদ্ধতি সারা পৃথিবীর স্বাস্থ্য সমাজের মধ্যে মেনে নেওয়া হয়েছে এবং গ্রহণযোগ্য হয়েছে। সাধারণত এটি ৬০ বছরের উর্দ্ধে কারোর উপর প্রয়োগ করা হয়ে থাকে। বলাই বাহুল্য, বহু বছর ধরে মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটালের স্পর্শকাতর অস্ত্রোপচার করার কৃতিত্ব এবং অভিজ্ঞতা রয়েছে, যেমন অ্যানজিওপ্লাস্টি। মেডিক্যাল টিম ইতিমধ্যেই নিজেদের রোজকার রুটিনের মধ্যে টিএভিআর পদ্ধতি নিয়ে অভ্যস্ত হয়েছে এবং বয়স্ক মানুষদের জন্য নিরাপদ এবং কার্যকারী পদ্ধতি হিসেবে পরিচিত হয়েছে। এই টিম মনে করে যে পর্যাপ্ত তথ্য জোগান দেওয়া একান্ত প্রয়োজন, যাতে কোন রোগী শারীরিক ও মানসিক ভাবে প্রস্তুত হতে পারেন এবং সম্পূর্ণ ভাবে সুস্থ হওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকেন।”

ডঃ কুমারের কথার সূত্র ধরেই লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডঃ অনুপ ব্যানার্জি, ইন্ডিয়ান আর্মি হসপিটালের কার্ডিওলজি বিভাগের প্রাক্তন প্রধান, যিনি বর্তমানে কলকাতার মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হসপিটালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট বলেন,” টিএভিআর একটি অনন্য জটিল পদ্ধতি। তবে আমাদের মত অভিজ্ঞ হার্টের টিম মেডিকা হসপিটালে জটিল কেস গুলো তেও সমস্যা ছাড়াই সমাধান হয়। ক্যাথিটার নির্ভর ভালভ বদল সামনের দিনে হার্টের ভালভের সমস্যার

ক্ষেত্রে খুব কার্যকরী ভূমিকা নেবে। রোগীদের যাদের কোমর্বিড অবস্থা এবং ৬৫ বছরের বেশি বয়স, তারা বর্তমানে ট্রান্স ক্যাথিটার ভালভ রিপ্লেসমেন্টের জন্য বিবেচিত হবেন, কারণ তারা লম্বা জেনারেল অ্যানাসথেসিয়ার জন্য মেডিক্যালি ফিট নয়।”

আর উদয়ন লাহিড়ী, ডিরেক্টর, মেডিকা সিনার্জি প্রাইভেট লিমিটেড বলেন,”মেডিকা সব সময়েই উন্নতমানের প্রযুক্তি এবং ক্লিনিক্যাল দিক থেকে সেরা পরিষেবা পূর্ব ভারতের মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রণী, যাতে কাউকে চিকিৎসার জন্য দেশে অন্যত্র যেতে না হয়। এই ডাবল টিএভি কেস আর রিম্যাটিক হার্টের এমন এক ধরনের উদহারন পৃথিবীতে, আমরা খুবই গর্বিত যে মেডিকাতে এই ধরনের কেস চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া গিয়েছে আমাদের কার্ডিওলজি টিমের সাহায্যে।”

About Post Author

Editor Desk

Antara Tripathy M.Sc., B.Ed. by qualification and bring 15 years of media reporting experience.. Coverred many illustarted events like, G20, ICC,MCCI,British High Commission, Bangladesh etc. She took over from the founder Editor of IBG NEWS Suman Munshi (15/Mar/2012- 09/Aug/2018 and October 2020 to 13 June 2023).
Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %
Advertisements

USD





LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here