জিএসটি দাখিলের নতুন পদ্ধতি

0
227
GST - India
GST - India

জিএসটি দাখিলের নতুন পদ্ধতি

By PIB Kolkata

অভিন্ন পণ্য ও পরিষেবা কর (জিএসটি) পর্ষদের ৩১তম বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে যে করদাতাদের জন্য জিএসটি দাখিলের ক্ষেত্রে নতুন এক পদ্ধতি চালু করা হবে। নতুন এই কর দাখিল পদ্ধতিকে আরও সহজতর করে তুলতে ইতিমধ্যেই পরিকল্পনার কাজ সমাপ্ত হয়েছে।

করদাতাদের সুবিধার্থে জিএসটি পোর্টালে ইতিমধ্যেই একটি অফলাইন রিটার্ন দাখিলের ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। এর ফলে, করদাতারা নতুন রিটার্ন দাখিলের বিভিন্ন পন্থাপদ্ধতি সম্বন্ধে সহজেই জানতে পারবেন। অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে কর দাখিলের কথা বিবেচনায় রেখেই অফলাইন রিটার্ন দাখিলের এই পদ্ধতি চালু করা হচ্ছে। নতুন এই কর দাখিল ব্যবস্থায় মোট তিনটি পদ্ধতি রয়েছে। প্রথমটি হল – ফর্ম জিএসটি রিটার্ন-১ এবং অন্য দুটি হল – ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-১ এবং ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-২।

আগামী জুলাই মাস থেকেই করদাতারা অফলাইন ব্যবস্থার মাধ্যমে পরীক্ষামূলকভাবে ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-১ ব্যবহার করে চালান আপলোড করতে পারবেন। এমনকি, ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-২ অফলাইন ব্যবস্থার মাধ্যমে করদাতারা আপলোড করা চালান দেখতে ও তা ডাউনলোড করতে পারবেন। জিএসটি পোর্টালের অনলাইন ব্যবস্থার মাধ্যমেও দাখিল করা চালান সম্পর্কিত বিবরণ পাওয়া যাবে। তবে, জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর – এই তিন মাস নতুন কর দাখিল ব্যবস্থার (অ্যানেক্সচার-১ ও অ্যানেক্সচার-২) সুবিধা করদাতারা পরীক্ষামূলকভাবে গ্রহণ করতে পারবেন। পরীক্ষামূলক এই ব্যবস্থায় করমান্যতা বা ইনপুট ট্যাক্স ক্রেডিট ক্ষেত্রে কোনরকম প্রভাব পড়বে না। এই তিন মাসে করদাতারা ফর্ম জিএসটিআর-১ এবং ফর্ম জিএসটিআর-৩বি পূরণ করে তাঁদের যাবতীয় কর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবেন।

আগামী অক্টোবর থেকে কর দাখিলের ক্ষেত্রে ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-১ বাধ্যতামূলক হচ্ছে। একইসঙ্গে, ফর্ম জিএসটিআর-১-এর পরিবর্তে ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-১ চালু হচ্ছে। বিগত অর্থবর্ষে ৫ কোটি টাকার বেশি বার্ষিক লেনদেনের ক্ষেত্রে করদাতারা আগামী অক্টোবর মাস থেকে ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-১ পদ্ধতির সাহায্যে তাঁদের মাসিক কর সংক্রান্ত খতিয়ান আপলোড করতে পারবেন। বিগত অর্থবর্ষে ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত বার্ষিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ছোট করদাতারা বাধ্যতামূলকভাবে ত্রৈমাসিক ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-১ পদ্ধতির সাহায্যে কর খতিয়ান আপলোড করতে পারবেন। অবশ্য, বড় বা ছোট উভয় শ্রেণীর করদাতারাই ফর্ম জিএসটি অ্যানেক্সচার-১ পদ্ধতির সাহায্যে চালান বা কর সংক্রান্ত অন্যান্য বিবরণ আপলোড করার সুযোগ আগের মতোই পাবেন। আগামী অক্টোবর ও নভেম্বর মাসে বড় করদাতারা মাসিক ভিত্তিতে ফর্ম জিএসটিআর-৩বি দাখিল করতে পারবেন। এই শ্রেণীর করদাতারা ডিসেম্বর মাসের জন্য তাঁদের প্রথম ফর্ম জিএসটিআর রিটার্ন-০১ ২০২০-র ২০শে জানুয়ারি পর্যন্ত দাখিল করতে পারেন। অন্যদিকে, ছোট করদাতাদের ফর্ম জিএসটিআর-৩বি দাখিল করার প্রয়োজন হবে না। তবে, আগামী অক্টোবর মাস থেকে এঁদেরকে ফর্ম জিএসটি পিএমটি-০৮ দাখিল করতে হবে। ছোট করদাতারা অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ত্রৈমাসিকের জন্য তাঁদের প্রথম ফর্ম জিএসটিআর রিটার্ন-১ দাখিল করার সুযোগ পাবেন ২০২০-র ২০শে জানুয়ারি পর্যন্ত।

২০২০-র জানুয়ারি থেকে সমস্ত করদাতাদের ফর্ম জিএসটি রিটার্ন-১ দাখিল করতে হবে। কারণ, আলোচ্য সময় থেকে জিএসটিআর-৩বি পদ্ধতিতে কর দাখিল প্রক্রিয়া সম্পূর্ণরূপে প্রত্যাহার করে নেওয়া হচ্ছে। আগামী অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত রিফান্ড বা ফেরৎ সংক্রান্ত আবেদন দাখিল ও তার প্রক্রিয়ার জন্য পৃথক নির্দেশাবলী জারি করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here