Ramadan Special – West Bengal Government will supply food packets during Holi Month

0
1395
Iftar Selling - Food Special for Roza
Iftar Selling - Food Special for Roza

Bengal Govt planning to provide Ramzan food packets

Trinamool Congress-led West Bengal Government is planning to provide special ‘Roza’ food packets at a subsidised rate from ration shops across the state during the fasting month of Ramzan.

“In all the ration shops across the State, Roza food packets will be provided from June 5- July 6. It will be given twice in the one-month period. The food packets will have each and every ingredient – sugar, flour, chick peas and others food items and will cost lesser than in the open market,” state Food Supplies Minister Jyotipriya Mullick said.

Mr Mullick said the government had set a rice procurement target of 45 lakh tonnes during this season, of which 35 lakh tonnes have already been procured. This is the highest ever procurement, he said. Earlier the state’s warehousing capacity was 48,000 tonnes which has now been increased to 5,91,000 tonnes.

Construction is on to increase the capacity by another 1.8 lakh tonnes, the minister said, adding the target is 12 lakh tonnes. Out of the 171 Krishi Bazars in the state, 60 have warehousing capacity and work is on to provide the others with it.

 

রমজানে বিশেষ খাদ্য প্যাকেজ দেবে রাজ্য সরকার

তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত পশ্চিমবঙ্গ সরকার এবার রমজান মাসে বিশেষ রেশনের ব্যবস্থা করছে। বৃহস্পতিবার নবান্নে খাদ্য দপ্তরের সঙ্গে একটি বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্ত নেন মুখ্যমন্ত্রী।

খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘৫ই জুন থেকে ৬ই জুলাই রাজ্যের প্রতিটি রেশন দোকান থেকে ১৫দিন অন্তর এই খাদ্য সামগ্রী দেওয়া হবে। রেশনে দুবার কম দামে ছোলা, সর্ষের তেল, ময়দা, চিনি, সুজি দেওয়া হবে। বাজার দরের থেকে দশ টাকা কম দামে এই সব সামগ্রী দেওয়া হবে’।

জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক আরও বলেন, ‘রাজ্য সরকারের ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা ৪৫ লক্ষ মেট্রিক টন। এর মধ্যে ৩৫ লক্ষ মেট্রিক টন ধান ইতিপূর্বেই চাষিদের কাছ থেকে কিনে নিয়েছে সরকার। আগে রাজ্যে সরকারি গুদামে ৪৮ হাজার মেট্রিক টনের বেশি খাদ্যশস্য মজুত করার সুবিধা ছিল না। এখন ৫ লক্ষ ৯১ হাজার মেট্রিক টন খাদ্যশস্য মজুত করার উপযোগী গুদাম তৈরি করা সম্ভব হয়েছে। আরও ১ লক্ষ ৮০ হাজার মেট্রিক টন ক্ষমতাসম্পন্ন গুদাম নির্মাণের কাজ চলছে’।

রাজ্য সরকার কৃষিপণ্যের ১২ লক্ষ মেট্রিক টন ক্ষমতা সম্পন্ন গুদাম তৈরি করার পরিকল্পনা নিয়েছে। রাজ্যের ১৭১টি কৃষক বাজারের মধ্যে ৬০টি তেই এই কৃষিপণ্যের গুদাম তৈরি হয়ে গেছে।