Mamata Banerjee the Protector of Common People – I wish to will remain a guard for the common people Didi said at Alipurduar

0
875
Mamata
Mamata

I wish to will remain a guard for the common people: Mamata Banerjee at Alipurduar

I wish to will remain a guard for the common people: Mamata Banerjee at Alipurduar

West Bengal Chief Minister Mamata Banerjee said that she wished to remain a guard for the common people of Bengal.  On the first day of her visit to north Bengal, the West Bengal Chief Minister was addressing a public rally at Parade Ground, Alipurduar, from where she also inaugurated and laid the foundation stones for a bouquet of projects.

The Chief Minister inaugurated several development projects like Krishak Bazaars, an ITI, a Karma Tirtha,  road projects, drinking water supply projects, anganwadi centres,  embankment projects  for Alipurduar, and two multi super-specialty hospitals in Malbazar and Jalpaiguri and several other health projects, both in north and south Bengal.

The West Bengal Chief Minister also laid the foundation stones for the second Bhutan Gateway in Jaigaon, a Government polytechnic college, water supply projects, power stations, schools, hostels and several other projects for the area.

She also distributed benefits including for Kanyashree, Sabuj Sathi, pattas and agri-equipments.

Addressing people from the stage, the Chief Minister said that the state will soon get five more districts. Of these, Asansol, Kalimpong and Jhargram are on the anvil and the official notification will be made shortly.

She said that she wants to be a guard for the people. If the people of the State are beniftted, everybody else will be benefitted too, she said.

She urged the people to shower their blessings onto her and said that it will provide her with inspiration to do more work. She pointed out that she kept he word and her focus was to bring development for the youth of north Bengal.

The Chief Minister also pointed out that a lot of work had to be stalled because of the election but all of those has resumed. She said that she had kept her promise to attend the 2nd anniversary of the formation of Alipurduar district.

The West Bengal Chief Minister pointed out that almost 90% of the people living in Bengal has received benefit of some or the other Government projects. She said that tis was made possible due to the regular administrative review meetings in the districts.

The Chief Minister pointed out that the new districts that will be formed will have administrative buildings housing all the 36 departments.

The Chief Minister also instructed the DM to announce school holiday on Wednesday to celebrate the 2nd anniversary of the formation of Alipurduar.

 

জনগণের পাহারাদার হয়ে কাজ করতে চাই: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

‘আমি মানুষের পাহারাদার হয়ে মানুষের পাশে থাকব’। বিপুল জয়ের পর উত্তরবঙ্গ সফরের প্রথম দিনে আলিপুরদুয়ার প্যারেড গ্রাউন্ডে এই জনসভায় একথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে এক গুচ্ছ প্রকল্পের কাজের সূচনা ও উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

কৃষক বাজার, আই টি আই, কর্ম তীর্থ, রাস্তা নির্মাণ সহ আরও বেশ কিছু প্রকল্পের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। আলিপুরদুয়ারে ১২ কোটির রবীন্দ্রভবন, ৩ কোটি ব্যয়ে আলিপুরদুয়ার শহরের সৌন্দর্যায়ন, আলিপুরদুয়ার হাসপাতালের পানীয় জল, জলপাইগুড়ি ও মালবাজারে সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের উদ্বোধন, জয়গাঁয় ৭০ কোটির পানীয় জল, আলিপুরদুয়ার প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রজাপতি পার্ক-সহ নানা প্রকল্প৷ চা বলয়ে অত্যাধুনিক অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবারও উদ্বোধন করেন তিনি।

জয়গাঁতে দ্বিতীয় ভুটানের প্রবেশদ্বার, দমনপুরে সরকারী পলিটেকনিক কলেজ ভবন, জল সরবরাহ প্রকল্প, বিদ্যুৎ সাব স্টেশন, স্কুল, হস্টেলসহ আরও বিভিন্ন প্রকল্পের শিলান্যাস করেন মুখ্যমন্ত্রী।

এছাড়া কন্যাশ্রী, সবুজ সাথী, পাট্টা ও কৃষি যন্ত্রপাতিসহ বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

তিনি আরও বলেন, ”যত আশীর্বাদ দেবেন, তত আমরা কাজ করব৷ কথা দিলে কথা রাখি৷ উত্তরবঙ্গের ছেলেরা যাতে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারে সেই কাজই করছি৷”

তাঁর সরকারের অভিমুখ মানুষই৷ নির্বাচন ছিল বলে কাজ থমকে ছিল৷ আবার তা শুরু হয়ে গিয়েছে৷ ভোটের আগে যে কথা দিয়েছিলেন সেই প্রতিশ্রুতি আজ রক্ষা করলেন  এবং তার দেওয়া কথামতো তিনি আজ আলিপুরদুয়ারের দ্বিতীয় বর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানে এসেছেন।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানান, গত পাঁচ বছর ৯০ শতাংশ মানুষের কাছে কিছু কিছু না পরিষেবা তাঁর সরকার পৌঁছে দিতে পেরেছে৷ তা সম্ভব হয়েছে নিয়মিত জেলাভিত্তিক প্রশাসনিক বৈঠকগুলির মধ্য দিয়েই৷

মুখ্যমন্ত্রী জানান, নতুন যে জেলাগুলি হবে তার প্রতিটিতে একটি করে প্রশাসনিক ভবন তৈরি হবে৷ সেখানে ৩৬টি করে দফতর থাকবে৷ প্রতিটি দফতর থাকবে একই ছাতার তলায়৷

আজ হাসিমারাতে আলিপুরদুয়ার জেলার প্রশাসনিক বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী৷ আগামীদিন উত্তরকন্যায় দার্জিলিং-জলপাইগুড়ি-কোচবিহার জেলার প্রশাসনিক বৈঠক হবে৷