শরিফুল ইসলামের স্মরণসভায় আত্মীয় সমাজ গড়ার আহ্বান

0
878
Shariful Islam Memorial Meet
Shariful Islam Memorial Meet

শরিফুল ইসলামের স্মরণসভায় আত্মীয় সমাজ গড়ার আহ্বান

ফারুক আহমেদ

শরিফুল ইসলামের স্মরণসভায় আত্মীয় সমাজ গড়ার আহ্বান জানালেন সমাজের বিশিষ্ট মানুষজন। নজরুল চর্চা কেন্দ্রের উদ্যোগে বারাসাত জেলা পরিষদ ভবনের মধ্যে তিতুমীর সভাকক্ষে রবিবার, বেলা তিনটের সময় সুস্থ সমাজ গঠনের কান্ডারী শিক্ষক বাবলু সরকারের নেতৃত্বে শহীদ শরিফুল ইসলাম-এর স্মরণ সভা আয়োজন ছিল চোখে দেখার মতন।

শহীদ শরিফুল ইসলাম-এর পরিবারকে আর্থিক অনুদান দিয়ে সাহায্য করতে এগিয়ে আসে এই সমাজ সচেতন সংগঠনটি। অনুষ্ঠানটির শুভ উদ্বোধন সকলের মনে দাগ কাটে শরিফুল ইসলাম-এর আত্মত্যাগ ও আদর্শকে সামনে রেখে ‘দিনের আলো’ সঙ্গীত গোষ্ঠীর সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে। এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শরিফুল ইসলাম-এর পরিবারের পাশে আর্থিক অনুদান নিয়ে এগিয়ে আসেন বিদ্যমান বহু ব্যক্তিগণ। সভাপতি হিসাবে উপস্থিত ছিলন এলাকার কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও নজরুল চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি ড. শেখ কামাল উদ্দীন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আলিয়া বিশ্ব বিদ্যালয়ের বাংলার অধ্যাপক ড. সাইফুল্লা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিরাত এর রাজ্য সম্পাদক আবু সিদ্দিক খান, বেডস্-এর রাজ্য সভাপতি আমিনুল ইসলাম, সাংবাদিক ও সমাজ কর্মী আব্দুল কাইয়ুম, বিখ্যাত আবৃত্তিকার ও অভিনেতা সেলিম দুরানি বিশ্বাস, বাচিক শিল্পী ও শিক্ষক আবেদিন হক আদি, সঙ্গীত শিল্পী সীমা সম,বাচিক শিল্পী মৌটুসী দত্ত, সুমাইয়া গার্লস মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা নাসির উদ্দীন, সঙ্গীত শিল্পী লিপিকা গুহ ঠাকুরতা, এনসিইআরটি বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক প্রাণতোষ ব্যানার্জী, সংস্কৃতিসম্পন্ন বিশিষ্ট কর্মী তপতি রায়, কবি সায়রুল ইসলাম সহ আরও অনেকই।

অনুষ্ঠান শেষে আয়োজক বাবলু সরকার বলেন, সাধারণ ঘরের সাধারণ ছেলে শরিফুল ইসলাম অপরিসীম দারিদ্রের মধ্যেও যে শুভ বোধ টুকু হৃদয়ে জ্বালিয়ে রেখেছিলেন সেই দ্বীপ শিখাটিকে নিয়ে আমরা আত্মীয় সমাজ গড়ে তুলবো। এই সভাতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বারাসাতে শহীদ শরিফুল ইসলামকে নিয়ে আমরা আত্মীয় সমাজ গড়ে তুলবোই এবং মানুষের কল্যাণেই কাজ করব। ৫ আগষ্ট রবিবার বেলা তিনটের সময় বারাসাত জেলাপরিষদ ভবনে শহীদ শরিফুল ইসলাম-এর স্মরণসভার আয়োজন করা হয়েছিল। শরিফুল ইসলাম-এর স্মরণসভায় বহু মানুষ আসেন এবং তাঁর পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে সাহায্য করেন।

শহীদ শরিফুল ইসলামের পরিবারকে বাঁচানোর এই মহৎ উদ্যোগ দেখে সমাজ প্রাণিত। এই সভা থেকে ডাক দেওয়া হল আসুন আমরা সবাই আত্মীয় সমাজ গড়ে তুলি। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করারর কথা ছিল পশ্চিমবঙ্গের রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. বাসব চৌধুরী মহাশয়ের। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত হওয়ার কথা ছিল দক্ষ পুলিশ অফিসার ড. হুমায়ন কবীর সাহেবের, ডিআইজি, ট্রাফিক। সভাপতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নহাটা জে.এন.এম.এস. মহাবিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ড. শেখ কামাল উদ্দীন।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন এবং মূল্যবান বক্তব্য রাখেন এন.সি ই.আর.টি বিভাগের প্রাক্তণ অধ্যাপক প্রাণতোষ ব্যানার্জী, অবসরপ্রাপ্ত অ্যাসিস্ট্যান্ট পুলিশ কমিশনার সৈয়দ বদরুদোজ্জা, সিরাত-এর রাজ্য সম্পাদক আবু সিদ্দিক খান, বেডস-এর রাজ্য সভাপতি আমিনুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. রফিক সর্দার, কর্মঠ সাইফুল ইসলাম, সমাজসেবী জাহির উদ্দীন মোল্লা প্রমুখ। আর সেই সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন শহীদ শরিফুল ইসলাম-এর পরিবারের সদস্যরা। কৃতজ্ঞতায় আয়োজক ছিলেন তরুণ কান্ডারী এবং শিক্ষক বাবলু সরকার। সঞ্চালনায় ছিলেন বাবলু সরকার।