চলতি বছরের শেষ নাগাদ হলদিয়ায় মাল্টি-মোডাল টার্মিনালটি তৈরি হয়ে যাবে বলে জানালেন ভারতের অভ্যন্তরীণ জলপথ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান

0
437
Export Import - India
Export Import - India

চলতি বছরের শেষ নাগাদ হলদিয়ায় মাল্টি-মোডাল টার্মিনালটি তৈরি হয়ে যাবে বলে জানালেন ভারতের অভ্যন্তরীণ জলপথ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান

By PIB Kolkata

কলকাতা, ৭ জুন, ২০১৯

চলতি বছরের শেষাশেষি হলদিয়ায় মাল্টি-মোডাল টার্মিনাল তৈরির কাজ শেষ হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন ভারতের অভ্যন্তরীণ জলপথ কর্তৃপক্ষ (আইডব্লিউএআই)-এর চেয়ারম্যান শ্রী প্রবীর পাণ্ডে। শ্রী পাণ্ডে আজ কলকাতায় বণিকসভা ইন্ডিয়ান চেম্বার অফ কমার্স আয়োজিত এক সভায় ভাষণ দিচ্ছিলেন। তিনি আরও জানান, সাহেবগঞ্জ মাল্টি-মোডাল টার্মিনালে জুলাই মাসে কাজকর্ম শুরু হয়ে যাবে। হলদিয়া থেকে বারাণসী পর্যন্ত গঙ্গা নদীর ১ নম্বর জাতীয় জলপথটিকে কলকাতা থেকে নেপাল পর্যন্ত পণ্য পরিবহণের কাজে ব্যবহারের পরিকল্পনা রয়েছে। এজন্য তিনটি রুটের কথা ভাবা হয়েছে। প্রথম রুটে কলকাতা থেকে জলপথে পণ্য যাবে সাহেবগঞ্জ, সেখান থেকে সড়কপথে পণ্য নেপালের বিরাটনগরে পৌঁছে যাবে। দ্বিতীয় রুটে কলকাতা থেকে বিহারের কালুঘাট পর্যন্ত পণ্য জলপথে পাঠানো হবে। এরপর, সড়কপথে ঐ পণ্য বিরাটগঞ্জে যাবে। তৃতীয় রুটে কলকাতা থেকে জলপথে পণ্য পৌঁছবে বারাণসীতে। তারপর সেখান থেকে সড়কপথে যাবে নেপালগঞ্জ বা মহিন্দ্রনগরে। এছাড়াও, ভারতের সঙ্গে নেপালের জলপথে পণ্য পরিবহণের জন্য গন্ডক নদীকে ব্যবহারের বিষয়েও চিন্তাভাবনা চলছে।

পশ্চিমবঙ্গে জল মার্গ বিকাশ প্রকল্প সম্পর্ক শ্রী পাণ্ডে বলেন, ভারত-বাংলাদেশ প্রোটোকল রুট অনুযায়ী বিকল্প বন্দর হিসেবে কোলাঘাটের কথা ভাবা হচ্ছে। কোলাঘাট ৪১ নম্বর জাতীয় সড়কের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় জলপথে পণ্য পরিবহণের পাশাপাশি, সড়কপথেও পণ্য পরিবহণ সম্ভব। তিনি আরও জানান, ফরাক্কা নেভিগেশন ব্লক ২০২০-র জুন নাগাদ চালু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে জলপথে পণ্য পরিবহণের ব্যাপক সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে শ্রী পাণ্ডে বলেন, পরিবহণের ক্ষেত্রে এ ধরণের মাধ্যম সড়ক যানজট এড়ানোর ক্ষেত্রে সহায়ক হবে।